বিস্তারিত :-




গোয়ার অজানা কিছু তথ্য I onlinedairy.in

গোয়া

   গোয়া সম্বন্ধে কিছু জানা অজানা তথ্য আমি আপনাদের কাছে নিয়ে এসেছি।

                   এর সাহায্যে আপনারা গোয়া সম্বন্ধে সবকিছু জানতে পারবেন এবং ধারণা লাভ করতে পারবেন।

 

 গোয়ার অজানা কিছু তথ্য I onlinedairy.in

গোয়া রাজ্য গঠন :-- 

    গোয়া রাজ্য টি গঠন হয় ৩০মে১০৮৭

 

গোয়া রাজ্যের রাজধানী :-- 

    গোয়া রাজ্যের রাজধানী হল পানাজি ( পানাজিম )

 

গোয়া রাজ্যের আয়তন :-- 

    গোয়া রাজ্যের মোট আয়তন হল ৩.৭০২ বর্গ কিমি ( ১.৪২৯ বর্গ মাইল )

 

গোয়া রাজ্যের জেলা :-- 

    গোয়া রাজ্যের জেলার সংখ্যা ২টি যা হল - উওর গোয়া জেলা ও দশ

 

গোয়া রাজ্যের জনসংখ্যা :-- 

    গোয়া রাজ্যের মোট জনসংখ্যা হল ২০১১ সাল অনুযায়ী ১৪.৫৮.৫৪৫

 

গোয়া রাজ্যের ভাষা :-- 

    গোয়া রাজ্যের রাষ্টিয় ভাষা হল কোঙনী

 

গোয়া রাজ্যের ধর্ম :-- 

    গোয়া রাজ্যের ধর্ম হল হিন্দু ৬৬.১% , খ্রিষ্টান ২৫.১% , মুসলমান হল প্রায় ০.১% ছোট সংখ্যক সংখ্যা লঘুরা হল শিখ ধর্ম , জৈন বা বৌধ ধর্মের অনুসারী ছিলেন

 

 গোয়ার রাজ্যের জনঘনত্ব:

      গোয়ার সর্বমোট জনঘনত্ব  ৩৯০/বর্গ কিমি (১,০০০/বর্গমাইল)

 

 গোয়ার রাজ্যের সাক্ষরতার হার:

     গোয়ার সর্বমোট সাক্ষরতার হার হল ৭৯.৩১%

 

 গোয়া রাজ্যের প্রধান প্রধান নদী:

     মান্ডবি এবং জুয়াড়ি গোয়া রাজ্যের দুটি প্রাথমিক নদী। মান্ডবী নদী যা মহাদায়ী বা মহাদেই নদী নামে পরিচিত। এছাড়াও রয়েছে তেরে- খোল, ছাপড়াকূসাবতি, শাল, তালপোনা

 

 গোয়ার রাজ্যের কৃষি ফসল:

      গোয়াতে চাল হল প্রধান খাদ্য ফসল এবং ডাল, রাগি এবং অন্যান্য খাদ্য ফসল ও বেড়ে যায়। মূল নগদ ফসল হলো নারকেল,কেশেন, শস্য, আখ এবং আনারস, আম ও কলা মত ফসল প্রভৃতি

  

গোয়ার রাজ্যের বিধানসভার নির্বাচনক্ষেত্র:

গোয়া রাজ্যের মোট বিধানসভার সংখ্যা  ৪০টি। 


 সংসদীয় নির্বাচনক্ষেত্র:

গোয়া রাজ্যের মোট নির্বাচন ক্ষেত্রের  সংখ্যা ২টি।

 

গোয়ার রাজ্যের দর্শনীয় স্থান:

 গোয়া ভারতের ক্ষুদ্রতম রাজ্য। গোয়া মনোরম সমুদ্র সৈকত এবং একটি সারাবছর অবকাশ অবধী মরশুম সরবরাহ করে। এটি হাজার হাজার পর্যটকদের হৃদয় মোহিত করে। 


গোয়ার কিছু কিছু আকর্ষণীয় স্থান গুলি হল কল্যাঙ্গুট বিচ: গোয়ার বৃহত্তম সমুদ্র টির কল্যাঙ্গুট বিচ একইভাবে "সৈকতের সার্বভৌম"হিসেবেও পরিচিত। এটি একটি বড় শান্ত সমুদ্রতীর। ডেল্টিন রয়্যাল ক্যাসিনো: ডেল্টিন রয়্যাল ক্যাসিনো হলো গোয়ার পাঞ্জিমের বৃহত্তম ক্লাব বোর্ড। 


এছাড়াও রয়েছে গ্র্যান্ড আইল্যান্ড, ক্যান্ডেলিম বীচ, টিটোর স্ট্রীট, ক্লাব কিউবানা, Mambos, চাপোড়া দুর্গ, আসভেম বিচ। 


এছাড়াও দক্ষিণ গোয়ার দর্শনীয় স্থানগুলো পালোলেম বিচ, বাটারফ্লাই বিচ, আগোণ্ডা সমুদ্র সৈকত, সেন্ট অ্যালেক্স চার্জ, শ্রীশান্ত দুর্গা মন্দির, তাম্বদি সূরলা মহাদেব মন্দির প্রভৃতি দর্শনীয় স্থান রয়েছে

 

গোয়ার রাজ্যের উৎসব:

  শিগমী বা শিশিরোউৎসব ভারতের গোয়া রাজ্যের হিন্দু সম্প্রদায়ের মাঝে উদযাপিত একটি প্রধান বসন্ত উৎসব। একটি ভারতীয় হলেও দোলযাত্রা উৎসব এর একটি অংশ। যা গোয়ার কোম্কণী অধিবাসীরা উদযাপন করে। এছাড়াও গোয়াতে ঘুমট, গোকুল অষ্টমী,মান্দ,গোয়া কার্নিভাল প্রভৃতি উৎসব

 

গোয়া রাজ্যের ইতিহাস :--  

ইতিহাস এর দিক থেকে দেখলে গোয়া রাজ্যের ইতিহাস এ আমরা বিভিন্ন ধরনের কথা জানা যায় । গোয়াতে প্রাপ্ত রক আর্ট সভ্যতাগুলি ভারতে মানুষের জীবনের সবচেয়ে প্রাচীন চিহ্ন প্রদর্শন করে।


১৩১২ সালে, গোয়া দিল্লী সুলতানাত শাসনের অধীনে এসেছিল। এই রাজবংশের পতনের পরে এলাকাটি বেজাপুরের আদিল শাহের হাতে পড়ে যারা পর্তুগীজদের ভলহা গোয়া বা পুরাতন গোয়া নামে পরিচিত তাদের অকিজলিয়ারী রাজধানী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়।


১৯৪৭ সালে ভারত থেকে ব্রিটিশদের স্বাধীনতা লাভের পর ভারতীয় উপমহাদেশের পর্তুগিজ অঞ্চলগুলি ভারতে প্রবেশ করতে অনুরোধ জানায়। ১৯৮৭ সালের ৩০ শে মে, কেন্দ্রীয় অঞ্চল বিভক্ত হয়ে যায়, এবং গোয়া ভারতের ২৫-পঞ্চমাংশ রাষ্ট্র গঠিত হয় এবং দমন ও দিউ একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে রয়েছে। 

 

 গোয়ার অজানা কিছু তথ্য I onlinedairy.in

No comments: